সর্বকালের সেরা ১০ জন পুরুষ দৌড়বিদ

দৌড় প্রতিযোগিতা হলো পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীনতম এবং সহজ খেলার ভিতরে একটি। কারণ এই খেলায়  কোন দল বা কোন ব্যয়বহুল সরঞ্জামের দরকার নেই। জনপ্রিয় অলিম্পিক গেমসে প্রতিবারই দর্শকদের প্রচুর আকর্ষণ থাকে দৌড় প্রতিযোগিতার প্রতি।  ১৮৯৬ সাল থেকে অলিম্পিক গেমসের দৌড় প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে আজ অব্দি পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগতির মানবের খেতাবটি পেয়েছেন  উসাইন বোল্ট। তিনি মাত্র ৯.৫৮ সেকেন্ডে  ১০০ মিটার দৌড় শেষ করে এই অমর কীর্তি গড়েন। ১৮৯৬ সালের এথেন্স  অলিম্পিকে  যখন প্রথমবারের মতো দৌড় প্রতিযোগিতা শুরু হয় তখন ইউএসের টমাস বার্ক  ১২.০ সেকেন্ডে প্রথম ১০০ মিটার ড্যাশ জিতেছিলেন। সেই ১৮৯৬ সাল থেকে আজ পর্যন্ত অসংখ্য স্প্রিন্টার ১০০ মিটার, ২০০ মিটার,৪০০ মিটার ও অন্যান্য রিলে দৌড়েছেন এবং তাদের মধ্যে অনেকে তাদের সময়ের সেরা  দৌড়বিদের সম্মাননা পেয়েছেন। আজ আমরা দেখে নিব এমন দশজন দৌড়বিদের  পরিচিতি যারা তাদের অসাধারণ পারফরমান্সের মাধ্যমে বিশ্বের সর্বকালের সেরা দৌড়বিদদের খাতায় নাম লিখিয়েছেন।

১০. জাস্টিন গ্যাটলিন

জাস্টিন গ্যাটলিন একজন আমেরিকান দৌড়বিদ। তিনি, ১৯৮২ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে  জন্মগ্রহণ করেন। তার  ক্যারিয়ারের সেরা সাফল্য আসে ২০০৪ সালে অলিম্পিক গেমসে। সেই অলিম্পিকে গ্যাল্টিন  ১০০ মিটার ড্যাসে মাত্র ৯.৮৫ সেকেন্ডে দৌড়ে জিতে নেন সোনার মেডেল। এছাড়াও সেবার ২০০ মিটার দৌড়ে তিনি ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। এরপর তিনি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পুনরায় ১০০ ও ২০০ মিটার রিলেতে গোল্ড মেডেল জয় করেন।

নিজের দেশ আমেরিকার পতাকা কাধে গ্যাল্টিন :source: sportskeeda.com

জাস্টিনের ক্যারিয়ারে একটা অঘটন ঘটে ২০০৬ সালে। ডোপিংয়ের দায়ে তাকে ৪ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয় । কিন্তু উদ্যমী গ্যাটলিন দীর্ঘ ৪ বছর পর ফিরে এসে ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ১০০ মিটার ড্যাসে ব্রোঞ্জ এবং ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে ১০০ মিটার ড্যাসে দৌড়ে সিলভার মেডেল জেতেন। জাস্টিন তার নিজের সম্পর্কে বলেছেন,  “আমি একজন চ্যাম্পিয়নের মতো দৌড়াই।  আমার জন্য এটাই বড় সান্ত্বনা যে, আমি দেখিয়েছি কতটা প্রভাবশালী আমি। আমি একজন অলিম্পিক ও বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন,কিন্তু আমি  জাস্টিন সবকিছুতে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। ”

৯.ডোনোভান বেইলি

ডোনোভান বেইলি কানাডার সর্বকালের সেরা একজন দৌড়বিদ। তিনি  ১৯৬৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। বেইলির ক্যারিয়ারের সেরা মুহূর্ত এসেছিলো ১৯৯৬ সালে অ্যাটলেন্টা অলিম্পিকে। বেইলি সে বছর ১০০ মিটার রিলে ৯.৮৪ সেকেন্ডে অতিক্রম করে বিশ্ব রেকর্ড গড়েন। যেটা ২০০৫ সাল পর্যন্ত সর্বকালের সেরা রেকর্ড ছিল। ২০০৫ সালে এসে আসাফা পাওয়েল তাকে টপকে যান।

ছবিতে আনন্দে উচ্ছ্বসিত ডোনোভান বেইলি :source: sportskeeda.com

ডোনোভান বেইলির আরেকটি সেরা সাফল্য  আসে ১৯৭৭ সালে। সেবার মাইকেল জনসনকে হারিয়ে ১৫০ মিটার দৌড়ে জিতে তিনি বিশ্বের দ্রুতগতির মানব হন। যে রেকর্ডটা আজও ভাঙতে পারেনি কেউ।  নিজের প্রতি অঢেল আত্মবিশ্বাস নিয়ে তিনি বলেছিলেন, “কোনো দলের হয়ে খেলা আমার জন্য খুব ভালো নয়, কারণ আমি হারতে পারি না।”

৮. আসাফা পাওয়েল

আসাফা পাওয়েল জ্যামাইকার খ্যাতনামা দৌড়বিদ। পাওয়েলকে বলা হয় দৌড়ে জ্যামাইকার আধিপত্যের প্রতিষ্ঠিতা। তিনি  ইতিহাসের একমাত্র দৌড়বিদ যিনি ১০ বার সাব গেমসে খেলেছেন।

ট্রাকে দাড়িয়ে রয়েছেন আসাফা পাওয়েল :source: sportskeeda.com

আসাফা পাওয়েলের ক্যারিয়ারে বড় সাফল্য  আসে ২০০৫ ও ২০০৮ সালে। তিনি, ২০০৫ সালে জুন মাসে ১০০ মিটার রিলে ৯.৭৭ এবং ২০০৮ সালে ৯.৭৪ সেকেন্ডে দৌড়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েন। কিন্তু  ২০০৮ সালেই আরেক জ্যামাইকান কিংবদন্তি উসাইন বোল্ট তার রেকর্ড ভেঙে দেন। এরপর ২০১৩ সালে দেহে নিষিদ্ধ উপকরণের অস্তিত্ব পাওয়ায় বহিষ্কৃত হন পাওয়েল। কিন্তু  ফিরে এসে ২০১৬ রিও অলিম্পিকে ৪×১০০ মিটার রিলেতে স্বর্ণপদক লাভ করেন এবং এখনো তিনি খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন।

৭.মরিস গ্রিন

মরিস গ্রিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন সাবেক দৌড়বিদ। তিনি ১০০ মিটার ও ২০০ মিটার দৌড়ের জন্য বিখ্যাত ছিলেন।

২০০১ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে মরিস গ্রিন: source: sportskeeda.com

মরিস গ্রিন ১৯৯৯ সালে তার সেরা কীর্তি গড়েন। ১৯৯৯ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে দৌড়ে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির মানব হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন। মাত্র ৯.৮০ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে তিনি এ খ্যাতি লাভ করেন। এছাড়াও সিডনি অলিম্পিকে গ্রিন  ১০০ মিটার রিলে মাত্র ৯.৭৯ সেকেন্ডে শেষ করেন। সেই অলিম্পিকে তিনি দুটি গোল্ড মেডেল জিতে নেন। গ্রিন তার ক্যারিয়ারে তিনবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। ২০০৫ সালে তিনি ইনজুরিতে পড়েন এবং ২০০৮ সালে অবসর নেন।

 

৬.টাইসন গে

টাইসন গে ১৯৮২ সালের আগস্টে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকিতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি  বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ  দ্রুতগতির মানব।   ১০০ মিটার ড্যাস ৯.৬৯ সেকেন্ডে অতিক্রম করে তিনি এই কীর্তি গড়েন।

নিজ দেশের পতাকা কাঁধে টাইসন গে :source: sportskeeda.com

টাইসন গের ক্যারিয়ারের সেরা সাফল্য আসে ২০০৭ সালে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে। যেখানে তিনি ১০০ মিটার, ২০০ মিটার ও ১×৪০০ মিটার এই তিনটি ইভেন্টে গোল্ড মেডেল জিতেছিলেন। ইতিহাসে তিনিই একমাত্র দৌড়বিদ যিনি ১০০ মিটার ড্যাসে ১০ সেকেন্ডের কমে, ২০০ মিটার ইভেন্টে ২০ সেকেন্ডের কমে এবং ৪০০ মিটার ইভেন্টে ৪৫ সেকেন্ডের কমে দৌড় শেষ করেছেন।

৫.জোহান ব্লেক

জোহান ব্লেক একজন জ্যামাইকাইন দৌড়বিদ। তিনি ১৯৮৯ সালের ২৬ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। টাইসন গের মত তিনিও ১০০ ও ২০০ মিটার ড্যাসে বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুতগতির মানব।

ট্র্যাকে উচ্ছ্বসিত জোহান ব্লেক :source: sportskeeda.com

জোহান ব্লাক ২০১১ সালে সর্বকনিষ্ঠ জ্যামাইকান হিসেবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতেছিলেন। এরপর ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ১০০ মিটার ও ২০০ মিটারে রৌপ্য এবং ৪০০ মিটার ইভেন্টে স্বর্ণপদক জিতে নেন। এর চার বছর পর ২০১৬ রিও অলিম্পিকে জোহান ব্লেক পুনরায় ৪০০ মিটার ইভেন্টে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন।

৪.মাইকেল জনসন

মাইকেল জনসনের পুরো নাম হলো মাইকেল ডুয়ান জনসন। তিনি  ১৯৬৭ সালের ১৩ ই সেপ্টেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেন।

১০০ মিটার ড্যাসে জয়ের পর মাইকেল জনসন।source: sportskeeda.com

মাইকেল জনসন  অলিম্পিক গেমসে চারটি সোনার মেডেল এবং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ৮ টি সোনার মেডেল জিতেছেন। উসাইন বোল্টের পর তিনিই সর্বোচ্চ সোনার মেডেলধারী দৌড়বিদ। তিনি ইতিহাসের একমাত্র দৌড়বিদ যিনি একই অলিম্পিকে ১০০ মিটার ও ২০০ মিটার দৌড়ে সোনা জিতেছেন। অ্যাটলেন্টা অলিম্পিকে তিনি এই রেকর্ড গড়েছিলেন।

৩.কার্ল লুইস

কার্ল লুইস ছিলেন  আমেরিকার একজন পেশাদার দৌড়বিদ। তিনি শুধু ১০০ , ২০০ ও ৪×১০০ মিটার ইভেন্টের জন্যই বিখ্যাত ছিলেন না , তার অসাধারণ জ্যাম্পের জন্যও বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেন। তিনি অলিম্পিকে মোট ১০ টি মেডেল জিতেছিলেন যার মধ্যে ৯ টিই ছিল সোনার মেডেল।

লুইসের অসাধারণ জাম্প ; source: sportskeeda.com

লুইস বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে রৌপ্য এবং ব্রোঞ্জের পাশাপাশি আটটি স্বর্ণপদক জিতে নেন। ১৯৭৯ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত দৌড়ের ট্র্যাকে ছিল তার আধিপত্য। বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশন তাকে ”ওয়ার্ল্ড এ্যাথলেট অফ দ্য সেঞ্চুরি”, স্পোর্টসম্যান অফ দ্য সেঞ্চুরি” এবং ‘অলিম্পিয়ান অফ দ্য সেঞ্চুরি’ এ সকল নামে আখ্যায়িত করেছেন। কার্ল লুইসের একটি বাণী তুলে ধরা হলো , “দিনের শেষে আপনি যদি ট্র্যাক ও ফিল্ডের একজন পেশাদার ক্রীড়াবিদ হন,  তাহলে আপনি নিজের কোম্পানির সিইও।”

২.জেসি ওয়েনস

সর্বকালের সেরা দৌড়বিদের একজন হলেন জেসি ওয়েনস। তিনি ১৯৩৬ সালের বার্লিন গেমসে চারটি স্বর্ণপদক জিতেছিলেন।

ছবিতে জেসি ওয়েনস । source: sportskeeda.com

তখনকার স্টেডিয়ামের ট্র্যাক ছিল পুরনো।  সেই পুরনো ট্রাকে তিনি ১০০ মিটার অতিক্রম করেন ১০.৩ সেকেন্ডে এবং ২০০ মিটার অতিক্রম করেন ২০.৭ সেকেন্ডে।

১.উসাইন বোল্ট

নিঃসন্দেহে ইতিহাসের সর্বকালের সেরা দৌড়বিদ হলেন জ্যামাইকার কিংবদন্তি দৌড়বিদ উসাইন বোল্ট। উসাইন বোল্ট বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির মানব হিসেবেও খ্যাত। ১৯৮৬ সালের ২১ আগস্ট তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

গতিমানব বোল্ট ছুটছেন সকলের আগে:source: sportskeeda.com

উসাইন বোল্ট তার ক্যারিয়ারে ১৯ টি গোল্ড মেডেল , একটা ব্রোঞ্জ ও দুইটি সিলভার সহ মোট ২২ টি পদক অর্জন করেন। তিনি, ২০১২ সালে বেইজিং অলিম্পিকে ১০০ মিটার দৌড় শেষ করতে সময় নেন মাত্র ৯.৫৮ সেকেন্ডে। আর তার এই রেকর্ডের মধ্য দিয়ে তিনি হয়ে যান বিশ্বের সর্বকালের সবচেয়ে দ্রুতগতির মানব। এছাড়াও ২০০ মিটার ও ৪০০ মিটার ইভেন্টে বোল্ট যথাক্রমে ১৯.১৯ সেকেন্ডে ও ৪৫.২ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করেছেন। উসাইন বোল্ট তার ২২ টি পদকের মধ্যে অলিম্পিক গেমস থেকে ৯ টি স্বর্ণপদক  এবং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ হতে ১০ টি স্বর্ণ, ২ টি রৌপ্য ও একটি ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন। দৌড়বিদদের মধ্যে তার ঝুলিতেই পদকসংখ্যা বেশ

 

Featured image source : sportskeeda.com 

2 Comments

Leave a Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *