জার্মান দলগুলোর ক্রয়কৃত ৭ জন দামী ফুটবলার

মৌসুমের একেবারে শেষদিকে এসে অন্য লিগগুলোর মতোই জমে উঠেছে জার্মান বুন্দেসলিগা। বিগত কয়েক বছর ধরে বায়ার্ন মিউনিখ এককভাবে প্রাধান্য বিস্তার করলেও এবার ঘুরে দাড়িয়েছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডও। সেই কারণেই এখন অবধি নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না কোন দল জিতবে এবারের লিগ শিরোপা। বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে বলা যায় নতুন চ্যাম্পিয়ন পেতে মৌসুমের শেষ অবধি অপেক্ষা করতে হবে।

বুন্দেসলিগা; Image Source: B/L

শিরোপা লড়াই যখন ভালোভাবে জমে উঠেছে ঠিক তখনি দলবদলের বাজারেও বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে জার্মান লিগের ছোট-বড় দলগুলো। বড় দলগুলো ইতোমধ্যেই একাধিক খেলোয়াড়কে কিনে নিয়েছে, আর ছোট দলগুলোও নিজেদের তরুণ ফুটবলারদের বেশি দামে বিক্রি করতে দলবদল মৌসুম শুরুর আগেই দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। বুন্দেসলিগার অতীত ইতিহাস পর্যালোচনা করলে অনেক কিংবদন্তি খেলোয়াড়ের নাম পাওয়া যায়। আর তারই ধারাবাহিকতায় এখনো অনেক তারকা ফুটবলার জার্মান লিগ মাতাচ্ছেন।

দলবদল মৌসুম; Image Source:TW

জার্মান লিগে সর্বোচ্চ দামে খেলোয়াড় কেনা বেচার রেকর্ডটি নতুন করে তৈরি হয় গত মাসে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ ফরাসি লেফট ব্যাক লুকাস হার্নান্দেজকে কেনার মধ্যদিয়ে দলবদলের শতবর্ষী সকল রেকর্ড ভাঙ্গে। আর এতে করেই আলোচনায় আসে বুন্দেসলিগার দলবদলের কিছু অতীত ইতিহাস। সেই সুবাদে আজ আমরা তুলে ধরবো বুন্দেসলিগার ইতিহাসের ৭টি ব্যয়বহুল দলবদলের বিস্তারিত বিবরণ।

১.লুকাস হার্নান্দেজ (৮০ মিলিয়ন ইউরো)

দীর্ঘদিন যাবত অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করা দিয়েগো সিমিওনের হাত ধরে বেড়ে উঠা তরুণ ফুটবলারদের মধ্যে লুকাস হার্নান্দেজ অন্যতম। ২০১৪-১৫ মৌসুমে কিশোর বয়সে অ্যাথলেটিকোর মূলদলের হয়ে অভিষেক হয় তার। এরপর প্রায় প্রতি মৌসুমেই কমবেশি দলে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। খুব অল্প বয়সে বিশ্বমানের পারফরম্যান্স করায় ২০১৮ সালে ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপ খেলার জন্য ডাক পান তিনি। পুরো টুর্নামেন্টে লুকাস ছিলেন কোচের প্রথম পছন্দ এবং বিশ্বকাপ জেতার পেছনে তার অবদান ছিলো অপরিসীম।

লুকাস হার্নান্দেজ; Image Source: Goal

চলতি মৌসুমের শুরু থেকে কোনো এক অজানা কারণে সিমিওনের প্রথম পছন্দের তালিকা থেকে বাদ পড়েন লুকাস। যার ফলে এবার লা লিগায় মাত্র ১৪ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। নিয়মিত খেলার সুযোগ না পেয়ে লুকাস যখন দল ছাড়ার পরিকল্পনা করছিলেন ঠিক তখনি সুযোগ কাজে লাগিয়ে তাকে কিনে নেয় বায়ার্ন মিউনিখ। চুক্তি অনুসারে আগামী জুনে বায়ার্নের জার্সি গায়ে জড়াবেন ২৩ বছর বয়সী এই লেফট ব্যাক। জার্মান লিগের কোনো দল এর আগে এত দাম দিয়ে কোনো খেলোয়াড় দলে ভেড়ায়নি।

২. জুলিয়ান ড্রাক্সলার (৪৩ মিলিয়ন ইউরো)

জার্মান জায়ান্ট শালকে জিরো ফোরের একাডেমিতে বেড়ে উঠা তারকাদের মধ্যে অন্যতম একজন ছিলেন জুলিয়ান ড্রাক্সলার। নিজ প্রতিভাগুণে খুব অল্প বয়সেই শালকের মূল দলে সুযোগ পান তিনি। ঠিক তখন থেকেই ইউরোপের কয়েকটি বড় দল তাকে কেনার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু বয়স কম হওয়ায় বড় দলগুলোতে পর্যাপ্ত সুযোগ পাবেন না জেনে সেই প্রস্তাবগুলো ফিরিয়ে দেন তিনি।

জুলিয়ান ড্রাক্সলার; Image Source: Goal

কিন্তু এরই মাঝে আরেক জার্মান দল উলভসবার্গ তাকে দলে নিতে লোভনীয় প্রস্তাব দেয়। বড়সড় অর্থের প্রস্তাব পেয়ে তাকে বিক্রি করতে রাজি হয় শালকে। ৪৩ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ২০১৫ সালে উলভসবার্গে যোগ দেন জুলিয়ান ড্রাক্সলার। লুকাস হার্ন্দান্দেজের সঙ্গে বায়ার্নের চুক্তির আগ পর্যন্ত ড্রাক্সলার ছিলেন জার্মান দলগুলো কর্তৃক কেনা সর্বোচ্চ দামী ফুটবলার।

৩. করেন্টিন টোলিসো

ফরাসি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার টোলিসো কৈশোরে বেড়ে উঠেছেন অলিম্পিক লিঁও ফুটবল একাডেমিতে। পরবর্তীতে খুব কম বয়সে মূলদলে সুযোগ পান তিনি। লিঁও ছাড়ার পূর্বে ২০১৬-১৭ মৌসুম পর্যন্ত প্রায় নিয়মিতই একাদশে জায়গা পেতেন তিনি। মাঝমাঠে তার অসাধারণ পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হন বায়ার্ন মিউনিখের স্কাউটরা।

করেন্টিস টোলিসো; Image Source: Goal

পরবর্তীতে অনেক দরদামের পর ৪১.৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে টোলিসোকে বিক্রি করে অলিম্পিক লিঁও। বায়ার্নে নিজের প্রথম মৌসুমে দলে নিয়মিত সুযোগ পেলেও নতুন কোচের অধীনে মাত্র ২ ম্যাচ খেলতে পেরেছেন তিনি। গত বছর ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্যও ছিলেন ২৪ বছর বয়সী এই ফুটবলার।

৪. জাভি মার্টিনেজ (৪০ মিলিয়ন ইউরো)

স্পেনের যে দলগুলো খেলোয়াড় তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে তাদের মধ্যে অ্যাথলেটিকো বিলবাও অন্যতম। আর এই অ্যাথলেটিকো বিলবাও একাডেমিতে বেড়ে উঠা তারকাদের মধ্যে জাভি মার্টিনেজ অন্যতম।

জাভি মার্টিনেজ; Image Source: Goal

২০১২ সালে সেই সময়ের রেকর্ড সংখ্যক দামে তাকে দলে ভেড়ায় জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ। জাভি মার্টিনেজকে পেতে বায়ার্ন তখন রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনার মতো দলগুলোর সঙ্গে পাল্লা দেয়। পরবর্তীতে ৪০ মিলিয়ন ইউরো পর্যন্ত প্রস্তাব করে তাকে কিনে নেয় দলটি।

৫. আর্তুরো ভিদাল (৩৭.৫ মিলিয়ন ইউরো)

চিলির জাতীয় ফুটবল দলের নিয়মিত সদস্য আর্তুরো ভিদাল এই যুগের সফল মিডফিল্ডারদের মধ্যে একজন। লেভারকুসেনের হয়ে তার পেশাদার ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু হয়। পরবর্তীতে দীর্ঘ সময় তিনি ইতালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্টাসে খেলেন। জুভেন্টাসের হয়েই মূলত তিনি তার ক্যারিয়ারের সেরা সময়গুলো পার করেন।

আর্তুরো ভিদাল; Image Source: Goal

জুভেন্টাসের জার্সিতে তার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়ে শীর্ষ ৫ লিগের অনেক দলই কেনার প্রস্তাব দেয়। যদিও দরদামে বনিবনা না হওয়ায় শেষমেশ ২০১৫ সালে বায়ার্ন মিউনিখে যোগদেন আর্তুরো ভিদাল। তাকে দলে নিতে বায়ার্নের ব্যয় হয় ৩৭.৫ মিলিয়ন ইউরো।

৬. মারিও গোটশে (৩৭ মিলিয়ন ইউরো)

২০১৪ সালে বিশ্বকাপের ফাইনালে বদলি হিসেবে নেমে গোল করে জার্মানিকে বিশ্বকাপ জেতান ডর্টমুন্ডের ঘরের ছেলে মারিও গোটশে। তরুণ ফুটবলার নির্ভর এই দলটি থেকে বেড়ে উঠা প্রতিভাবানদের মধ্যে তিনি একজন। ইনজুরিতে পড়ার আগ পর্যন্ত গোটশে ছিলেন শীর্ষ ৫ লিগের উদীয়মান তারকাদের মধ্যে অন্যতম একজন। তাকে পাওয়ার জন্য ডর্টমুন্ডকে তখনকার সময়ের শীর্ষস্থানীয় দলগুলো লোভনীয় প্রস্তাব দিতো।

মারিও গোটশে; Image Source: Goal

যদিও স্বেচ্ছায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেন এই স্ট্রাইকার। তাকে দলে নিতে বায়ার্নের খরচ হয় ৩৭ মিলিয়ন ইউরো। যদিও গোটশের বায়ার্নের সময়টুকু মোটেও সুখময় ছিলোনা। ইনজুরির কারণে ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারেননি তিনি।

৭. বেঞ্জামিন পাভার্ড (৩৫ মিলিয়ন ইউরো)

বর্তমান সময়ের সর্বাধিক আলোচিত রাইট ব্যাক, ফরাসি ফুটবলার বেঞ্জামিন পাভার্ড। তিনি সর্বপ্রথম আলোচনায় আসেন গত বছর অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে। এত এত অভিজ্ঞদের বাদ দিয়ে ফ্রান্সের কোচ তাকে শুরুর একাদশে রাখেন। আর পুরো টুর্নামেন্টে ব্যক্তিগত সেরা পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে তিনি কোচের আস্থার প্রতিদান দেন।

বেঞ্জামিন পাভার্ড; Image Source: Goal

বিশ্বকাপের সেরা গোলটিও এসেছে তার পা থেকেই। ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপে নজরকাড়া পারফরম্যান্স করায় তাকে নিয়ে দলবদলের বাজারে বেশ হৈচৈ উঠে। কিন্তু চলতি মৌসুমের শেষে গ্রীষ্মকালীন দলবদল শুরুর আগে তার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সেরে নিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। স্টুডগার্ড থেকে ৩৫ মিলিয়নের বিনিময়ে আগামী মৌসুমের শুরুতে পাভার্ড পাড়ি জমাবেন মিউনিখে।

Featured Image: Goal.com

The post জার্মান দলগুলোর ক্রয়কৃত ৭ জন দামী ফুটবলার appeared first on Khela.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *